দেখতে পেলো সুন্দরী মেয়েটি আলোতে শুয়ে আছে

দেখতে পেলো সুন্দরী মেয়েটি আলোতে শুয়ে আছে

দেখতে পেলো সুন্দরী মেয়েটি আলোতে শুয়ে আছে, তারপর প্রায় এক মাস কেটে গেল। আকলার জীবন আগের মতোই চলে।

সে সেদিন আকলাকে তার অস্তিত্বের কথা জানায়নি কারণ সেদিন সে হরমা দেবীর স্বপ্ন দেখেছিল।

ভ্যাম্পায়ার দেবী হার্মাকে নিয়ে গোষ্ঠীর মানুষের মধ্যে ফিসফিসানি সম্পূর্ণভাবে বন্ধ হয়ে গেছে।

অবশ্য তিনি আকলার মন ছাড়েননি। তিনি দিনে অনেকবার দেবীর কথা ভাবেন। ঘুমানোর আগেও।

এই দেবীর কারণে এই গোষ্ঠীর কী ভয়াবহ ঘটনা ঘটেছিল, যে দেবতাকে তারা নির্বাসিত করেছিল!

আরও ভালবাসার গল্প পেতে ভিজিট করুউঃ logicalnewz.com

দেখতে পেলো সুন্দরী মেয়েটি আলোতে শুয়ে আছে

এমনকি তার নাম নেওয়াও নিষিদ্ধ! আকলা কিছুই জানে না। দলের প্রবীণরা এটি সম্পর্কে ভাল কথা বলতে পারেন।

কিন্তু তাদের অধিকাংশই এই বিষয়ে কথা বলবে না কারণ তারা মাঞ্জা বু এর কাছাকাছি। সেদিন পুকুরে দেবীকে তার নিজের রূপে দেখার পর,

আকলার ভাবলেন তিনি দেবীকে ভয় পান। এক অজানা অনুভূতি দেবীর ভাবনায় শরীর কেঁপে ওঠে।

তিনি দেবীকে ভুলে যেতে চেয়েছিলেন। কিন্তু আমি কিছুই করতে পারিনি। অনেকদিন পর, আজ রাতে ঘুমানোর আগে,

তিনি বিড়বিড় করতে লাগলেন, হারমা, হরমা, হরমা, হারমা স্বপ্নে সে আবার সেই মাটির বাড়ির সামনের উঠোনে দাঁড়িয়ে আছে।

সামনের ঝোপের কারণে কিছু দেখা না লেও আকলা জানে সেখানে একটি পুকুর আছে। কিন্তু আজ সেদিনের মতো জোৎস্না নেই।

একবার ঘরের সামনে ঝুলন্ত হারিকেনের আলোয় চারদিকে তাকালাম। নিস্তব্ধ অন্ধকার। তারপর ঘরের ভেতর থেকে সে কান্নার শব্দ শুনতে পেল।

ঘরে কার সাথে সাথেই সে দেখতে পেলো সুন্দরী মেয়েটি আলোতে শুয়ে আছে। আকলা কিছুক্ষণ কথা বলতে পারল না।

সে হারিকেনের আলো ছুড়ে মেয়েটির মুখের দিকে তাকিয়ে রইল

এত সুন্দর মুখ!ধীরে ধীরে মুখটা পরিচিত লাগতে লাগল। তার মায়ের মুখ! শুধু মুখের রং বে ফ্যাকাশে, চোখ আরো সুন্দর, মুখটা নিখুঁত।

এবং তার মুখে সবচেয়ে অপরিচিত, অনুপযুক্ত মিষ্টি হাসি। সে কখনোই তার মাকে এত মিষ্টি করে হাসতে দেখেনি।

মা! তুমি কি জানতুমি কি বহুরূপী দেবী! দেখতে আমার মায়ের মতো। রূপটো আমার শরীরের একটি বিশেষ অঙ্গ।

আমার রূপ তোমার সবার মধ্যে আছে। তোমাদের সবার রূপ আমার ভিতরে।মি আসলে আমার সামনে আসো না কেন?

তুমি ফোন করলেই আমি আসব। আমি তোমার জন্য.কিন্তু তারা আপনাকে আপনার নাম নিতে বাধা দেয়।

বু এবং মানুষ।তারা সঠিক পথ এবং ভুল পথ বেছে নিয়েছে। সহজ পথ ছেড়ে জটিল পথ। সবাই আবার সঠিক পথে থাকবে।

আপনাকে শুধু শুরু করতে হবে। আপনি আপনার গ্রুপে আমাকে পুনরায় প্রতিষ্ঠিত করতে পারেন।

হারানো গৌরব ফিরিয়ে আনতে পারব। কিভাবে?বিনিময়! এর মাধ্যমে সব ঠিক হয়ে যাবে। ধার বিনিময়ে উপকার।

তোমাকে আমার ক্ষুধা মেটাতে হবে

আমার খুব খিদে পেয়েছে! তোমার কবরস্থানে আমার প্রবেশ নিষেধ। আমি সেখানে যেতে পারি না। যত তাড়াতাড়ি আমি দুর্বল হয়ে যাই।

তুমি আমার ক্ষুধা মেটাতে পারো। এবার আকলার চোখ ও মুখ শুকিয়ে গেল। এখানে কেন কবরস্থান আসছে!

তার মনে পড়ল দেবীর কথা তুমি যা খুশি খেতে পারো। কিন্তু তোমার মাটির দরকার নেই। আমার রকার!

এই প্রথম তিনি একটি সুন্দর নারী মূর্তি তার সামনে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখেছেন। আমি বুঝতে পারি সবাই কেন এই দেবীকে ভ্যাম্পায়ার বলে।

এমনকি তার স্বপ্নেও আকলা পিপাসা অনুভব করতে পারে।

সে পালাতে চেয়েছিল। তিনি হতভম্ব হয়ে উঠে দাঁড়িয়ে চিৎকার করলেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *