পাকিস্তানি সমর্থকরা কি বাংপাকি নাকি BCB’র প্রতি ঘৃণার প্ৰকাশ

স্টেডিয়ামে বাংলাদেশিরা পাকিস্তানকে সমর্থন করছে- বিষয়টি নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক তোলপাড় চলছে। এরইপ্রেক্ষিতে সোমবার মিরপুরের শের বি বাংলা স্টেডিয়ামে আজ পাকিস্তান-বাংলাদেশের তৃতীয় টি টোয়েন্টি শুরু হয়েছে। এরইমধ্যে ভক্তরা দলবেঁধে স্টেডিয়ামে জার্সি ও পতাকা পরে যাচ্ছিল।

কবিরাজ: তপন দেব । এখানে আয়ুর্বেদী ঔষধের মাধ্যমে- আমাদের এখানে নারী ও পুরুষের সকল #যৌন_রোগ সহ জটিল ও কঠিন রোগের সু চিকিৎসা করা হয়।
বিঃ দ্রঃ আমাদের এখান থেকে দেশে ও বিদেশে কুরিয়ার করে ঔষধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – ০১৮২১৮৭০১৭০

মহান মুক্তিযুদ্ধে গণহত্যা চালানো পাকিস্তানিদের সমর্থনে এমন উল্লাস মেনে নিতে পারেনি দেশের সিংহভাগ মানুষ। আজ খেলা শুরুর আগে মিরপুর স্টেডিয়াম গেটের সামনে কিছু তরুণকে দেখা যায় ব্যানার হাতে দাঁড়িয়ে থাকতে। তারা পাকিস্তানি পতাকা নিয়ে স্টেডিয়ামে আসা বাংলাদেশি নাগরিকদের প্রতিরোধের ঘোষণা দেয়। তারা গ্যালারিতে পাকিস্তানি পতাকা ও জার্সি পরিহিত বাংলাদেশি সমর্থক দেখলে প্রতিবাদ জানাবেন বলেন জানান। এরপরেই একল সমর্থইককে হই করতে দেখা যায়।

এমন একটি ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। ওই ভিড়ের মধ্যে একজনের হাতে পতাকা কেড়ে নেওয়া হয়। সেটি কোনদেশের পতাকা। এরপরেই আরেকজনকে দেখা যায় জার্সি আড়াল করে যাচ্ছেন। পরে সেটি খুলে দেখা যায় পাকিস্তানের জার্সি। বাঙালি হয়ে পাকিস্তানের সমর্থন বিষয়ে প্রশ্ন করেন ওই ভক্তকে। এরপর তার জার্সি কেড়ে নেওয়া হয়। তাকে আটক করা হলেও জার্সিটা নিয়েই ছেড়ে দেওয়া হয়।
বাংলাদেশি সমর্থকেরা এসময় জয় বাংলা স্লোগান দিয়ে এলাকা কাঁপিয়ে তোলে। এর আগে পাকিস্তানি দালাল রুখবে তারুণ্য ব্যানারে অবস্থান নেয় একদল বাংলাদেশি সমর্থক। ওই সংগঠনের আহ্বায়ক হামজা রহমান অন্তর বলেন, ৩০ লাখ শহীদ ও ২ লক্ষাধিক মা-বোনের আর্তনাদের বিনিময়ে পাওয়া স্বাধীনতা।
সেই স্বাধীনতার শত্রু যারা আজও রাষ্ট্রীয়ভাবে ক্ষমা চায়নি, ক্ষতিপূরণ দেয়নি। যারা আজেও ষড়যন্ত্র অব্যাহত রেখেছে, তাদের হয়ে এদেশীয় দালাল গোষ্ঠীকে ৭১ এর মতোই প্রতিহত করতে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ আমরা। এদিকে বাংলাদেশিদের নিজ দেশের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়ে পাকিস্তানিদের সমর্থন করায় নৈতিক মূল্যবোধ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অনেকেই।
অন্যদিকে বাকিরা বলছে , বাংলাদেশ ক্রিকেট ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে । সাধারণ জনগন যে কোন দল কে সাপোর্ট করতে পারে। আমার মনে হয় যারা মাঠের উপর এমন বাজে ব্যবহার করেছে তাদের আইনের আওতায় আনা হোক।
কবিরাজ: তপন দেব । এখানে আয়ুর্বেদী ঔষধের মাধ্যমে- আমাদের এখানে নারী ও পুরুষের সকল #যৌন_রোগ সহ জটিল ও কঠিন রোগের সু চিকিৎসা করা হয়।

বিঃ দ্রঃ আমাদের এখান থেকে দেশে ও বিদেশে কুরিয়ার করে ঔষধ পাঠানো হয়। আপনার চিকিৎসার জন্য আজই যোগাযোগ করুন – ০১৮২১৮৭০১৭০

যারা পাকিস্তানের পোশাক পড়েছে এরা বাংলাদেশের উপর রাগে অভিমানে তাদের সাপোর্ট করেছে। বাংলাদেশ ক্রিকেট বাংলাদেশের দর্শকের শুধুই কষ্ট দিয়েছে । জোর করে পোশাক খুলে নিচ্ছেন পাপন কে চিয়ার থেকে নামান। মাশরাফি বসকে সভাপতি করেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *