এইটা আপনি কী বলছেন আপনি কী বুঝে শুনে

এইটা আপনি কী বলছেন আপনি কী বুঝে শুনে

এইটা আপনি কী বলছেন আপনি কী বুঝে শুনে, বয়স বৃদ্ধির সাথে সাথে একজন নারীর সেক্স হরমোন

গুলো নষ্ট হতে থাকে। ৩০বছর বয়সের পর থেকে একজন নারীর গর্ভধারণের ক্ষমতা কমতে থাকে এবং

৪০ বছরের পর এটা প্রায় অসম্ভব হয়ে পড়ে। কিন্তু হাসপাতালে একজন ৫২ বছর বয়সের মহিলার চেকাপের

পর যখন দেখলেন তিনি প্রেগন্যান্ট, তখন হাসপাতালের সকল ডাক্তারের বিস্ময়ের সীমা রইল না।

মহিলাটি এবং তার পরিবার এর চেয়ে বেশি বিস্মীত হলেন। চিকিৎসা বিজ্ঞানে নানান সময়  আশ্চর্য ঘটে।

আরও ভালবাসার গল্প পেতে ভিজিট করুউঃ logicalnewz.com

এইটা আপনি কী বলছেন আপনি কী বুঝে শুনে

কিন্তু এটাকে ডাক্তারেরা সেই পর্যায়েও ফেলতে পারছেন না। কারণ মহিলাটির স্বামী আজ থেকে

৬ বছর আগেই মারা গিয়েছেন। মহিলাটি তার এক ছেলে, ছেলের বউ আর দুই নাতিন নিয়ে ঢাকা শহরেরই

একটি অভিজাত এলাকায় বসবাস করেন। মহিলাটির একমাত্র সন্তান রিফাত। ডাক্তারের কাছে তার মা

সম্পর্কে এমন অদ্ভুত কথা শুনে পুরোই স্তব্ধ হয়ে গেল। তব্ধা ভাব কাঁটতে বেশ কিছুটা সময় লাগল তার।

কাঁপা কাঁপা কণ্ঠে তিনি ডাক্তার সানজিদাকে বললেন, সবকিছু? সানজিদা মলীন মুখে বলল, আপনার

অবস্থা আমরা বুঝতে পারছি। এই রিপোর্ট হাসপাতালের বাকি ডাক্তারদের দেখানোর পর তারাও বিস্মীত হয়েছে।

একজন ৫০ উর্ধ্ব নারীর গর্ভে ভ্রূণ মানে ভয়াবহ ব্যাপার

রোগির বেঁচে থাকাটা মুশকিল হয়ে যাবে। আপাতত এই বিষয়ে আপনার মাকে কিছু বলবেন না।

মুর্তির মতো বসে রইলেন রিফাত। খবরটা খুব দ্রুত ছড়িয়ে পড়ল পুরো হাসপাতালে। ডাক্তার সানজিদা

যাকে কথাটা বলতে নিষেধ করেছেন তার কানেও কথাটা পৌঁছল। রিফাতের মা আসমা বেগম নিজের সম্পর্কে

এই অদ্ভুত কথাটা শুনে পুরোই হতভম্ব হয়ে গেলেন। বেশ অনেক দিন ধরে তার শরীরটা বেশ খারাপ যাচ্ছিল।

এইটা আপনি কী বলছেন আপনি কী বুঝে শুনে

মাথা ঘোরা, বমি, শরীর দুর্বলতা সহ নানান উপক্রম। তিনি পেসারের রোগী। তাই এইটা নিয়ে অতটা বেশি ভাবলেন না।

কিন্তু তিনি পেটে আরও সমস্যার সম্মুখীন হলেন। তারপর রিফাতকে বললেন এসব। সে তাকে হাসপাতালে নিয়ে এলেন চেকাপের জন্য।

আর তারপরেই এই ঘটনা। আসমা বেগম একজন শিক্ষিতা মহিলা। তিনি এই অদ্ভুত কথাটা শুনে বাক শক্তি হারিয়ে ফেলেন। এটা কিছুতেই সম্ভব নয়। নিশ্চই ডাক্তারের কোনো ভুল হয়েছে। তিনি চুপচাপ রিফাতকে নিয়ে বাড়ি চলে এলেন।

রিফাতের স্ত্রী রিণা কৌতুহলী হয়ে রিফাতের কাছে আসমা বেগমের কী সমস্যা হয়েছে জানতে চাইলেন। রিফাত একটু অপ্রস্তুতভাবে বললেন, তেমন কিছুই না। পেসারের সমস্যা। পেটে সামান্য ব্যামো। ঠিক হয়ে যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *